Channel786 is a Community News Network

৯/১১ হামলার আরও তথ্য প্রকাশে উদ্যোগ বাইডেনের

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৯:৪৪, ১১ সেপ্টেম্বর ২০২১

৯/১১ হামলার আরও তথ্য প্রকাশে উদ্যোগ বাইডেনের

যুক্তরাষ্ট্রে ২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলার ঘটনার আরও তথ্য জনসমক্ষে প্রকাশ করার উদ্যোগ নিয়েছে দেশটির প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের প্রশাসন। এ জন্য মার্কিন বিচার বিভাগ দেশটির সরকারি গোপন তথ্য পর্যালোচনা করছে।

নাইন-ইলেভেন (৯/১১) নামে পরিচিত ওই হামলায় তিন হাজারের বেশি মানুষ নিহত হন। আগামী ১১ সেপ্টেম্বর ওই হামলার ২০ বছর পূর্তি হবে। এর আগেই ওই হামলার ঘটনার বিস্তারিত তথ্য প্রকাশের জন্য বাইডেন প্রশাসনের প্রতি জোর দাবি জানিয়ে আসছে হামলায় নিহত ব্যক্তিদের পরিবার।

বিচার বিভাগ নতুন করে ওই হামলার নথি পর্যালোচনা শুরু করার ঘটনাকে স্বাগত জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট বাইডেন। নির্বাচনী প্রচারণার সময় ওই হামলার বিস্তারিত তথ্য প্রকাশ করার প্রতিশ্রুতিও দিয়েছিলেন তিনি। গত সোমবার বাইডেনের পক্ষে এক বিবৃতিতে হোয়াইট হাউস জানিয়েছে, ‘নির্বাচনী প্রচারণার সময় আমি প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলাম যে আইন মেনে সর্বোচ্চ মাত্রায় স্বচ্ছতা নিশ্চিত করবে আমার প্রশাসন। এই অবস্থায় এর আগে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে প্রকাশ করা নথিগুলোর নতুন পর্যালোচনার যে উদ্যোগ বিচার বিভাগ নিয়েছে, তাকে আমি স্বাগত জানাচ্ছি এবং যত দ্রুত সম্ভব কাজটি সম্পন্ন করার দাবি জানাচ্ছি।’

২০০১ সালের ১১ সেপ্টেম্বর যুক্তরাষ্ট্রের টুইন টাওয়ারে জঙ্গি হামলা চালানো হয়।

নাইন-ইলেভেন হামলার বিস্তারিত তথ্য প্রকাশের দাবি জানিয়ে গত শুক্রবার একটি চিঠি প্রকাশ করেন হামলায় নিহত ব্যক্তিদের পরিবার, প্রত্যক্ষদর্শী ও বেঁচে যাওয়া ব্যক্তিরা। চিঠিতে বাইডেনের উদ্দেশে বলা হয়, ‘হামলার বিস্তারিত তথ্য যদি আপনি প্রকাশ না করেন, তাহলে এবারের স্মরণানুষ্ঠানে আপনার যোগ দেওয়ার দরকার নেই।’ চিঠিতে আরও বলা হয়, নাইন-ইলেভেন কমিশন ২০০৪ সালে তদন্তের উপসংহার টানলেও তদন্তে পাওয়া হামলায় সৌদি আরবের সরকারি কর্মকর্তাদের সমর্থনের অনেক তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। বিভিন্ন প্রশাসন, বিচার বিভাগ ও কেন্দ্রীয় তদন্ত সংস্থা (এফবিআই) এসব তথ্য গোপন করতে এবং নাইন-ইলেভেন হামলার পুরো সত্য জনগণকে না জানাতে সক্রিয়ভাবে চেষ্টা চালিয়েছে।

এই চিঠিতে ১ হাজার ৭০০ লোক স্বাক্ষর করেন, যাঁরা ওই হামলায় সরাসরি ক্ষতির শিকার হন। যদিও সৌদি আরব সরকার দাবি করে আসছে, স্মরণকালের ওই ভয়াবহ হামলায় তাদের কোনো ভূমিকা নেই।

তবে হামলার ভুক্তভোগী পরিবারগুলোর দাবি, জঙ্গিগোষ্ঠী আল-কায়েদার সঙ্গে যুক্ত ১৯ জন ওই হামলায় অংশ নেন, যাঁদের বেশ কয়েকজন সৌদি আরবের নাগরিক। তাই সৌদি আরব সরকার হামলাকারীদের কাউকে কোনো আর্থিক সহায়তা বা অন্যান্য সহায়তা দিয়েছে কি না, সেই বিষয়ে তথ্য প্রকাশ করা জরুরি।

হামলায় বাবা হারানো মার্কিন নাগরিক ব্রেট ইগলসন এক বিবৃতিতে বলেছেন, হামলার তথ্য পর্যালোচনা করার জন্য প্রেসিডেন্ট বাইডেনের উদ্যোগ প্রশংসাযোগ্য।


 চ্যানেল ৭৮৬ এর নিউজ রুম এ যোগাযোগ করতে ই মেইল করুন এই ঠিকানায় [email protected] । আপনার পন্য বা সেবার প্রচারে বিজ্ঞাপন প্রচারের জন্য কল করুন +1 (718) 355-9232 এই নাম্বারে।

সংবাদটি শেয়ার করুনঃ